অনলাইনেই রোবট অলিম্পিয়াডের কার্যক্রম

The 16th World Robot Olympiad is coming to Hungary

টেক ট্র্যাভেল ঃ আন্তর্জাতিক রোবট অলিম্পিয়াডে অংশ নিয়ে গত দুই বছরই স্বর্ণ পদক জিতেছে বাংলাদেশ। সেই ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে তৃতীয় রোবট অলিম্পিয়াডে অংশ নেবার জন্য শুরু হলো বাংলাদেশ রোবট অলিম্পিয়াডের কার্যক্রম। তবে এবারের কার্যক্রম কিছুটা ভিন্ন, করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে এবার কার্যক্রম শুরু হলো অনলাইনে।

২০০২ সালের ১ জানুয়ারি বা তারপরে জন্মগ্রহণ করা যে কোনো শিক্ষার্থী বিডিআরও ২০২০ আয়োজনে অংশ নিতে পারবে।

গত ৭ জুন তারিখে বিডিআরও ২০২০ এর প্রথম অনলাইন অ্যাক্টিভেশন অনুষ্ঠিত হয়। সারা বাংলাদেশের বিভিন্ন স্কুলের ৫০ শিক্ষার্থী অ্যাক্টিভেশনে অংশ নেয়। অ্যাক্টিভেশনে বিডিআরও এর এবারের প্রতিযোগিতাগুলো সম্পর্কে আলোচনা করেন বাংলাদেশ রোবট অলিম্পিয়াডের সভাপতি অধ্যাপক ড. লাফিফা জামাল এবং বিডিআরও এর মেন্টরবৃন্দ।

এর পাশাপাশি অংশগ্রহণকারীরা প্রশ্নোত্তর পর্বে অংশ নিয়ে রোবট অলিম্পিয়াডের জন্য প্রস্তুত হবার নানা বিষয়ে জানতে পেরেছে।

আগামীকাল বুধবার ও শনিবার আয়োজিত হবে আরও দুইটি অনলাইন অ্যাক্টিভেশন। এই অ্যাক্টিভেশন কার্যক্রমগুলোর পাশাপাশি বিগত বছরগুলোতে আন্তর্জাতিক রোবট অলিম্পিয়াডে অংশগ্রহনকারীদের নিয়ে অভিজ্ঞতা বিনিময় সেশন আয়োজন করা হবে।

এছাড়াও এবছর বেশ কিছু অনলাইন ক্লাসও আয়োজন করবে বাংলাদেশ রোবট অলিম্পিয়াড কমিটি যেখানে হাতে-কলমে বেসিক ইলেকট্রনিক্স থেকে শুরু করে রোবটিক্সের কিছু বেসিক জিনিস শেখানো হবে। এ ক্লাসগুলোতে কিভাবে অংশগ্রহণ করা যাবে সে ব্যাপারেও ঘোষণা দেয়া হবে বিডিআরও এর অফিসিয়াল ফেসবুক পেইজে।

এছাড়াও আসন্ন বাংলাদেশ রোবট অলিম্পিয়াডের ৩য় আসরের জন্য পোস্টার আহ্বান করা হয়েছে। যে কোন শিক্ষার্থীই বিডিআরও ২০২০ এর জন্য আয়োজিত এই থিম পোস্টার সাবমিশন প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে পারবে।

এ প্রতিযোগিতায় যার পোস্টার সেরা বলে নির্বাচিত হবে তিনি বিজয়ী হিসেবে পাবেন আকর্ষণীয় পুরস্কার এবং নির্বাচিত পোস্টারটি বাংলাদেশ রোবট অলিম্পিয়াডের ফেইসবুক পেইজের কভার বা অন্যান্য ডিজাইন, বাংলাদেশ রোবট অলিম্পিয়াডের জাতীয় আসরের বিভিন্ন ব্যানারে বা পোস্টারে ব্যবহৃত হবে।