ডিজিটাল মার্কেটিংয়ে ভ্যাট: আরও সময় চান সংশ্লিষ্টরা

মোঃ সাফায়েত হোসেন,(কুমিল্লা) নাঙ্গলকোট প্রতিনিধিঃ  ডিজিটাল মার্কেটিং খাতের ওপর আরোপিত ভ্যাট বাতিল করার দাবি তুলেছেন খাত সংশ্লিষ্টরা। ভিনদেশি বা বাংলাদেশের ভৌগোলিক সীমারেখার বাইরের ভার্চ্যুয়াল জগতে বিজ্ঞাপন দিতে হলে ব্যবহারকারীকে ১৫ শতাংশ হারে মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট) দিতে হবে। সম্প্রতি সব ব্যাংকের প্রধান নির্বাহীদের এমন নির্দেশ দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের এমন নির্দেশনার পর ৫ বছরের সময় চাইল খাত সংশ্লিষ্টরা। রাজধানীর আন্তর্জাতিক কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) চলমান বেসিস সফটএক্সপোতে ‘ডিজিটাল মার্কেটিংয়ে আরোপিত বর্তমান মূসক ব্যবস্থা এবং করণীয়’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে এ দাবি ওঠে।

বক্তাদের দাবি, ডিজিটাল মার্কেটিংয়ে আরোপিত ভ্যাট ৫ বছরের জন্য বাতিল করলে খাতটি থেকে সাফল্য মিলবে। বক্তারা আরও জানান, গত দুই বছরে দেশের ই-কমার্স মার্কেটিংয়ের পরিসর বেশ বেড়েছে। কিন্তু অনলাইনে পেমেন্টের ক্ষেত্রে কিছু জটিলতা কাজ করছে। বেশির ভাগ ই-কমার্সের লেনদেন হয় ক্যাশ অন ডেলিভারি, যা ইলেকট্রনিক্স ট্রানজেকশনে ধরা হয় না। ই-কমার্স নিয়ে আইসিটি ডিভিশনের গাইডলাইন রয়েছে। বক্তাদের ভাষ্য, ই-কমার্স সেক্টর সম্প্রসারণের জন্য কোনো সম্মিলিত বা নির্দিষ্ট গাইডলাইন নেই। ই-কমার্স ইন্ডান্ট্রিকে দ্রুত বৃদ্ধি করতে হলে নির্দিষ্ট পেমেন্ট সিস্টেম দরকার।

দরকার পরিকল্পিত গাইডলাইনের। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন এনবিআরের ভ্যাট পলিসি বিভাগের মেম্বার রেজাউল হাসান। এতে মূল বক্তব্য পাঠ করেন এনালাইজেন বাংলাদেশ লিমিটেডের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ রিসালাত সিদ্দিক। আলোচক হিসাবে উপস্থিত ছিলেন বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীর, বেসিস স্ট্যান্ডিং কমিটির ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের কো-চেয়ারম্যান কে এ এম রাশিদুল মজিদ, বেসিস পরিচালক দিদারুল আলম সানি, মাস্টার কার্ড বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার সৈয়দ মোহাম্মদ কামাল, এস এস এল ওয়েরলেসের চীফ অপারেটিং অফিসার আশীষ চক্রবর্তী এবং এরা ইনফোটেক লিমিটেডের চিফ এক্সিকিউটিভ অফিসার মো. সিরাজুল ইসলাম।