ফাইভ-জি’র পরীক্ষামূলক যাত্রা শুরু হয়েছে যুক্তরাজ্যে

5g

টেক ট্রাভেল ডেস্কঃ ফাইভ-জি’র পরীক্ষামূলক ব্যবহার শুরু করেছে যুক্তরাজ্যে । মোবাইল কোম্পানি ভোডাফোন যুক্তরাজ্যে প্রথমবারের মতো স্বয়ংসম্পূর্ণ ফাইভ-জি নেটওয়ার্কের পরীক্ষামূলক ব্যবহার শুরু করেছে। যুক্তরাজ্যে আপাতত এই ফাইভ-জি পরিষেবা শুধুমাত্র সালফোর্ড শহরে ব্যবসায়িক কাজে ব্যবহারযোগ্য। তবে এই পরীক্ষামূলক ব্যবহার সফলতার মুখ দেখলে যুক্তরাজ্যের আরো সাতটি শহরে নতুন এই প্রযুক্তির পরীক্ষামূলক ব্যবহার শুরু করার পরিকল্পনা রয়েছে কোম্পানিটির।

এ বছরের শুরুর দিকে যুক্তরাজ্যের মোবাইল অপারেটররা ফাইভ-জি তরঙ্গ দৈর্ঘ্যের জন্য সরকার নির্ধারিত নিলামে অংশগ্রহণ করে প্রায় ১.৪ বিলিয়ন ইউরোর বিনিময়ে ফাইভ-জি তরঙ্গ কিনে নেয়। আর তখন থেকেই মূলত অপারেটররা দ্রুত ফাইভ-জি চালু করার মাধ্যমে গ্রাহকদের নজর কাড়তে চেষ্টা করছে।

প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে সেপ্টেম্বর মাসে ভোডাফোন ফাইভ-জি প্রযুক্তি ব্যবহার করে যুক্তরাজ্যে প্রথম হলোগ্রাফিক ফোনকলের সূচনা করে। গত সপ্তাহ থেকে পূর্ণাঙ্গ ফাইভ-জি নেটওয়ার্ক পরীক্ষামূলক ভাবে চালু করেছে।

হলোগ্রাফিক ফোনকল ছাড়াও ফাইভ-জি প্রযুক্তিতে পাওয়া যাবে দ্রুত গতির ইন্টারনেট সুবিধা। যেখানে ফোরজি-তে একটি ভিডিও ডাউনলোড করতে এক মিনিট সময় লাগত সেখানে ফাইভ-জি প্রযুক্তিতে সেই ভিডিও ডাউনলোড করা যাবে মাত্র এক সেকেন্ডে। মূলত ফাইভ-জি নেটওয়ার্কে গতি হবে ফোরজি নেটওয়ার্কের ১০০ গুণ বেশি।

ফাইভ-জি নেটওয়ার্কে চালকহীন গাড়ি এবং স্বয়ংক্রিয় ড্রোনগুলোকে একে অপরের সঙ্গে যোগাযোগ করতে সক্ষম করে তুলবে। তবে ফাইভ-জি নিশ্চিতভাবে ভোক্তাদের খরচও বাড়াবে। কারণ ২০১৯ সালে সম্পূর্ণরুপে চালু হলে তখন তাদেরকে নতুন করে ফাইভ-জি সমর্থিত হ্যান্ডসেট কিনতে হবে।

তথ্যসূত্র : দ্য গার্ডিয়ান