প্রথম যাত্রায় বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনে পাথর নিক্ষেপ

FB_IMG_1556390665

সজিবুল ইসলাম হৃদয়, টেক ট্রাভেল ডেস্ক: দুদিন হয়নি যাত্রা শুরু করেছে ঢাকা-রাজশাহী রুটে প্রথম বিরতিহীন ট্রেন ‘বনলতা এক্সপ্রেস’। গত পরশু উদ্বোধনের পর  শনিবার ছিল ট্রেনটির প্রথম যাত্রা। শুরু থেকেই ঝকঝকে নতুন এই ট্রেনটিতে ঢিল ছোড়ার উৎসবে মেতে উঠেছে এক শ্রেণীর মানুষ। তাদের ঢিলের আঘাতে চুরমার হয়ে গেছে বনলতার ডিজিটাল ডিসপ্লে বোর্ড। চিড় ধরেছে জানালার কাঁচে।


ইন্দোনেশিয়া থেকে আমদানিকৃত নতুন সব সুবিধাযুক্ত ট্রেনের কোচগুলো কিছুদিন আগেই দেশে এসেছে। ব্রডগেজ কোচগুলোর বাইরে এবং ভেতরে আছে ডিজিটাল নেমপ্লেট।

রেলওয়ের গ্রুপে শনিবার  পোস্ট করা কিছু ছবি ও ক্যাপসনে এমনটা দেখা যায় চলতি পথে ঢিলের আঘাতে সেগুলো ভেঙে নষ্ট হয়ে গেছে। পাঠকদের জন্য ক্যাপসনট হুবুহু তুলে ধরা হলো_ “গত পরশু আর অাজকে ২দফা ঢাকা এসে রাজশাহী পৌঁছালো সদ্য উদ্ভোদন হওয়া বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেন’টি। এই ট্রেনের সব গুলো কোচ ব্র‍্যান্ড নিউ ইন্দোনেশিয়া হতে এসেছে।

২দিন চলার মধ্যেই চলতি পথে পাথর মেরে নষ্ট করা হয়েছে এর ডিসপ্লে, বেশ কিছু জানালাও পাথর/ঢিল এর আঘাতে ক্ষতিগ্রস্ত। কেমন মানসিক বিকলাঙ্গ হলে এমন উদ্ভট কাজ সম্ভব আপনারাই বলুন। সুন্দর জিনিস দেখতে কার না ভালো লাগে, দূর্ভাগ্য আমাদের “

শুধু বনলতা নয়; ঢিলের আঘাতে গত কয়েক বছরে আমদানি করা নতুন কোচগুলোর অবস্থাও শোচনীয় হয়ে উঠেছে। 

চলন্ত ট্রেনে ঢিল ছোড়া মারাত্মক অপরাধ। আশ্চর্য হলেও সত্য যে, বছরের পর বছর প্রতিদিন দেশের বিভিন্ন ট্রেনে এই ঢিল ছোড়ার ঘটনা ঘটছে। এসি বগির যাত্রীরা ঢিলের আঘাত থেকে বেঁচে গেলেও ননএসির যাত্রীরা প্রতিদিন আহত হচ্ছেন। যাদের মধ্যে শিশুও রয়েছে। এ সমস্যার সমাধানে এখন পর্যন্ত কার্যকর কোনো পদক্ষেপ নিতে দেখা যায়নি বাংলাদেশ রেলওয়ের পক্ষ থেকে। এটা রোধ করতে মানুষের সচেতনতা বৃদ্ধির পাশাপাশি কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা গ্রহণ করাও জরুরি বলে মনে করেন ট্রেনে ভ্রমন করা যাত্রীরা।