ইন্টারনেটই এখন সবকিছু

তানজিম রহমান রিম্পা, দিনাজপুর , সদর প্রতিনিধি : CISCO এর CEO জন চেম্বাস্ যখন বলেছিলেন ‍” ইন্টারনেটই সবকিছু” তার কথা শুনে তখন বিদ্রুপের হাসি হেসেছিল সবাই। অথচ আজ দেখা যাচ্ছে,  ১৭ ট্রিলিয়ন ডলারের বেশী একটা বাজার তৈরী হয়েছে এই ইন্টারনেটকে ঘিরে । ধারনা করা হচ্ছে, আগামী ১০ বছরের মধ্যে সম্পূর্ণ বাজার দখল করে নিবে ইন্টারনেট। এই ধারনা থেকেই মূলত: তৈরী হয়েছে IOT ।

IOT এর পূর্ণরূপ হল  Internet Of Things। যখন অনেকগুলো ডিভাইস্ একটা আর একটার সাথে ইন্টারনেট দ্বারা যুক্ত থাকবে এবং তাদের মধ্যে ডাটা আদান প্রদান করবে সেই সিষ্টেমকেই বলা হয় IOT। বাসায় ব্যবহৃত টিভি, ফ্রিজ, ওয়াশিং ম্যাশিন, বাথরুমের কল, দর্জার লক থেকে শুরু করে একটা শহরের ট্রাফিক সিগনাল, স্ট্রিটলাইট সিসটেম, GPS ইত্যাদি ডিভাইসগুলি হবে IOT । এককথায় বলতে গেলে প্রায় সমস্ত ডিভাইসকেই এর আওতায় আনা সম্ভব। সেদিন হয়তো খুব বেশী দুরে নয় যেদিন IOT ইংলিশ মুভিতে দেখা কল্পনার রাজ্যে নাড়া দেওয়া অবাস্তবকেও বাস্তবে রূপ দেবে।

Internet Of Things শব্দটি প্রথম আলোর মুখ দেখে পিটার লইসের হাত ধরে  ১৯৮৫ সালে। তবে বিভিন্ন বস্তু বা ডিভাইসে নেট ওয়াকের ধারনাটি  আরোও পুরানো। ১৮৪৪ সালে স্যামুয়েল মোর্স যখন টেলিগ্রাফ আবিস্কার করেন তখন প্রথম বারের মত মোর্স  কোড পাবলিক টেলিগ্রাফ ওয়াসিংটন ডিসি থেকে বাল্টিমোরে পাটাতে সক্ষম হন। বিজ্ঞানীরা এমন এক পৃথিবীর  স্বপ্ন দেখা শুরু করে যেটা আসলে আধুনিক IOT ধারনাটি তুলে  ধরে।

প্রয়োজনীয় কিছু ইলেকট্রোনিক্স ডিভাইস সফটওয়ার এবং সেন্সর এর কাজগুলো মানুষ কিংবা যেকোন বস্তুর গতিবিধী মনিটর করে প্রয়োজনিয় তথ্য দেয়া এবং সেটা প্রসেস করে একটি ডিভাইস থেকে আর একটি ডিভাসে প্রেরণ করা। এভাবেই চলতে থাকে একটি IOT সিস্টেম। তবে আসল কথা হল নেটওয়ারকিং প্রযুক্তির উন্নতির ফলে এই নতুন স্মার্ট ডিভাইসগুলো ইন্টারনেটের সাথে যুক্ত হতে পারে।  ভবিষ্যতে এই IOT এর ব্যবহার এত ব্যাপক হবে যে, প্রায় সব ডিভাইসগুলোই IOT কানেক্টেড হয়ে যাবে। আগামী ২০২২ সালের মধ্যে আর প্রায় ১ ট্রিলিয়ন সেন্সর ইন্টারনেট এর সাথে কানেক্টেড হবে। অর্থাৎ IOT আর সম্প্রসারিত হবে।