সায়েন্টিফিক রোবটিকস্

তানজিন রহমান রিম্পা, দিনাজপুর, সদর প্রতিনিধি: প্রশান্ত মহাসগরে তলদেশে জীব বৈচিত্র কেমন তা জানতে আমেরিকান বিজ্ঞানিরা তৈরী করেছেন একধরনের বিশেষ রোবট মাছ। দেখতে অনেকটা মাছের মতই, নমনীয় এই রোবটটি করালরিফে জীবন্ত মাছের সংগে ঘুরে বেড়িয়েছে। এর মাধ্যমে সাগরের তলদেশের পরিবেশ আরো ভালভাবে জানা যাবে বলেই আশা করছেন বিজ্ঞানীরা।

স্লিকন রাবার দিয়ে তৈরী করা এই রোবট মাছটির নাম“সোফি”। ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলোজির (এমআইটি) কম্পিউটার সাইন্স এন্ড আর্টিফিশিয়াল ইনটেলিজেনস ল্যাবরেটরির গবেষকরা এই রোবট মাছটি তৈরী করেছেন। ২০১৮ সালের ২১ মার্চ“সায়েন্টিফিক রোবটিকস্” নামক জার্নালে গবেষকগণ তাদের আবিষ্কৃত রোবট মাছের কথা উল্লেখ করেন। এই রোবট মাছটি সত্যিকারের মাছদের বিরক্ত না করে সাগরের জীব বৈচিত্র আরো বিশদভাবে জানতে সক্ষম বলেই জানাচ্ছেন গবেষকরা।

হাইড্রোলিক পাম্পের মাধ্যমে লেজ নাড়িয়ে এই রোবট মাছ সাগরের নীচে সাঁতার কাটতে সক্ষম। বিশেষ এক ফোমের মাধ্যমে মাছটি সাঁতার কাটতে ও পানির উপরে ভেসে উঠতে পারে। সাগরের নীচে প্রবাল প্রাচীরের মধ্য দিয়ে সাঁতার কাটতেও পারদর্শীর এই রোবট মাছ এতে সংযুক্ত থাকা একটি ক্যামেরার মাধ্যমে গবেষকরে জানতে পারেন সামনে কি আছে। রোবটির মাথায় ইলেকট্রোনিক বসানো আছে। আর একজন ডুবুরি পানির নিচে একটি রিমোট কন্ট্রলারের মাধ্যমে এই রোবট মাছটিকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন। আলট্রাসনিক সিগন্যালের মাধ্যমে রোবট মাছটিকে নিয়োন্ত্রণ করতে পারবেন ডুবুরিরা।

গবেষকরা জানিয়েছেন পরীক্ষামূলক ভাবে প্রসান্ত মহাসাগরের ৫০ফুট নীচে ফিজির রেইনবো প্রবাল প্রাচীরের মধ্যে ৪০ মিনিটের মত সাঁতরে বেরিয়েছে রোবটটি। দ্রুত গতিতে সাঁতরে রোবট মাছটি সুন্দরভাবে সাগরের ঢেউয়ের সংগে পাল্লা দিয়েছে। এ সময় একটি ফিস আই লেন্সের মাধ্যমে হাই রেজ্যুলেশনের ছবি তোলা ও ভিডিও ধারনের কাজও করেছে। একে এমনভাবে তৈরী করেন যাতে একে মাছের মতন দেখায়।

এর ফলে পানির গভীরে একে দেখলে কোন মাছ কিংবা অন্য কোন প্রাণি চমকে গিয়ে তাদের গতিপথ পরিবর্তন করবেনা। গবেষকরা দাবি করেছেন এই রোবট মাছটি সাগরের গভির গিয়ে মানুষের চেয়েও আরো ভালভাবে তথ্য সংগ্রহের কাজ করতে পারবে এবং এ আবিস্কারের ফলে পানির তলে গবেষনায় এখন আগের থেকে হয়ে গেল আরও বেশি সহজ।